টিভি কেনার পূর্বে অবশ্যই যে বিষয়গুলো জেনে নেওয়া প্রয়োজন

কদিন পরেই শুরু হতে যাচ্ছে ক্রিকেট বিশ্বকাপ। আপনার ড্রয়িংরুমের জন্য কি টিভি কিনার কথা ভাবছেন? কিন্তু আপনি কি জানেন টিভি কেনার পূর্বে অবশ্যই যে বিষয়গুলো জেনে নেওয়া প্রয়োজন? মূল্য ছাড়াও আরও অনেক বিষয় আছে যা আমাদের জানা উচিত। যেমনঃ এখন বাজারে অনেক ধরনের টিভি পাওয়া যায় LED, LCD, HD, Smart tv ইত্যাদি।

 

আছে নানা ব্রান্ড, সাইজের টিভিও। বাড়ির সবাই মিলে আরামে বসে যেন টিভিতে বিশ্বকাপ উপভোগ করা যায় তার জন্য একটি মান সম্মত টেলিভিশনের দরকার। তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক টিভি কিনার আগে খুঁটিনাটি যে বিষয়গুলো ভেবে নেওয়া উচিত।

গুরুত্বপূর্ণ যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখা উচিত

টিভি যেখান থেকেই কিনুন না কেন অনলাইন শপ বা শোরুম সবার আগে নিজে চিন্তা করে সিদ্ধান্ত নিন আপনি কোন ধরনের টিভি চাচ্ছেন। যেমনঃ পছন্দের কোনও ব্রান্ড থাকতে পারে। নির্ধারিত সাইজ আর বাজেট থাকতে পারে।

সব কিছুর মাঝেই নিশ্চয়ই বেস্ট টিভিটি আপানের ঘরের কন কিনবেন! যাইহোক, টিভি কেনার পূর্বে অবশ্যই যে বিষয়গুলো জেনে নেওয়া প্রয়োজন এই সম্পর্কে বিস্তারিত নিচে আলোকপাত করা হলঃ

LCD নাকি LED?

বাজারে আছে LCD, LED Plasma এই তিন ধরনের টিভি। আবার Super LED, LED Plus টিভিও বিক্রি হয়ে থাকে। LED এর পিকচার কোয়ালিটি ভালো এবং ঝকঝকে দেখা যায় সব কিছু। সেই তুলনায় LCD এর পিকচার কোয়ালিটি তেমন ভালো নয়। দেখে তেমন সাচ্ছন্দ পাওয়া যায় না। Plasma টিভি LCD টিভির তুলনায় পিকচার কোয়ালিটি ভালো। কিন্তু প্রচুর বিদ্যুৎ খরচ করে যা LCD টিভিতে অনেকটা কম।

 

সবচেয়ে বেশি বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী হচ্ছে LED কিন্তু LCD, Plasma থেকে দামি। আর Plasma টিভি মেরামত করা কষ্টসাধ্য। বর্তমানে LED, LCD টিভি আলাদা করা বেশ কঠিন কারণ সত্যিকারে LED টিভির দাম অনেক বেশি। প্রায় দুলাখ বা তারচেও বেশি। যাইহোক, বিদ্যুৎ সাশ্রয় এবং পিকচার কোয়ালিটির কথা চিন্তা করলে LED টিভিই সবদিক থেকে ভালো।

Smart টিভি নাকি Normal টিভি

এখন ফ্লাট মনিটরের টিভি ছাড়াও সবাই স্মার্ট টিভির দিকে ঝুঁকছে। কারণ এতে ইন্টারনেট সহ বিভিন্ন সফটওয়ার ব্যাবহারের সুযোগ রয়েছে। এটি শুধু একটি টিভিই নয়, কম্পিউটারও বটে। তাই আপনার বাজেট একটু বেশি হলে স্মার্ট টিভি কিনে দেখতে পারেন। তবে স্মার্ট টিভি কিনার আগে কিছু বিষয় জেনে নেওয়া প্রয়োজন।

 

যেমনঃ WiFi রেডি না বিল্ট ইন নিশ্চিত হয়ে নিন। যদি WiFi রেডি হলে ইন্টারনেটের জন্য ডংগল প্রয়োজন পড়তে পারে। আরেকটি বিষয় হচ্ছে USB পোর্ট। কমপক্ষে দুই পিন বিশিষ্ট পিন দেখে কেনা উচিত। অনেক টিভিতেই পেনড্রাইভ ব্যবহারের সুবিধা থাকলেও আলাদা ডিভাইস লাগে হার্ডড্রাইভ চালাতে। তাই সব কিছু দেখে শুনে কিনুন।

ফুল এইচডি নাকি এইচডি

হাই ডেফিনেশন বা এইচডি তে মুভি একদম ক্লিয়ার দেখা যায়। টিভি ৪৬ ইঞ্চির বেশি হলে ফুল এইচডি কিনা উচিত। কিন্তু অনেক সময় টিভির সাইজ আর দূরত্ব কম হলে Full HD ধরা কঠিন।

ওয়ারেন্টি

প্রতিটি টিভির সাথেই ওয়ারেন্টি থাকে ব্রান্ড ভেদে ২/৩/৪/৫। সাইজ আর মূল্য যত বেশি হবে ওয়ারেন্টিও বেশি হবে। ওয়ারেন্টি ম্যানুয়ালটি টিভি কেনার পর যত্ন করে রাখুন। নির্ধারিত সময়সীমার মাঝে টিভিতে কোনও সমস্যা দেখা দিলে বিনামূল্যে সার্ভিসিং করিয়ে নেওয়া যাবে।  

শেষ কথা

এগুলো ছাড়াও আরও কিছু বিষয় টিভি কেনার পূর্বে অবশ্যই যে বিষয়গুলো জেনে নেওয়া প্রয়োজন যেমনঃ  টিভির সাউন্ড কোয়ালিটি, ভিউয়িং অ্যাঙ্গেল ঠিক আছে কিনা ভালো ভাবে জেনে নেওয়া উচিত। তারপর পছন্দসই একটি টেলিভিশন কিনে আনুন আর উপভোগ করুন মুভি, খেলা, নাটক যা ইচ্ছে তাই। আশা করা যাচ্ছে, যে পয়েন্টগুলো আলোচনা করা হয়েছে এখানে নতুন টিভি ক্রেতাদের জন্য তা উপকারী হবে।

Ponnobd Electronics
No Comments
Posted in:
Guides, Weekly Updates
Comments
There are no comments yet.
Write a comment
All search results