fbpx

SSD কেনার আগে সাধারণ কিছু বিষয় জানতে হবে

SSD কেনার আগে সাধারণ কিছু বিষয় জানতে হবে

আসসালামু আলাইকুম, আপনার পিসি বা ল্যাপটপ যদি স্লো হয়ে যায় তবে আপনার পিসি কে বর্তমান অবস্থা থেকে আরো ৫ গুন গতিশিল করতে SSD-র বিকল্পে নেই।

পূর্বে এই SSD  অনেক প্রাইস ছিল। কিন্তু বর্তমানে এসএসডি-র দাম অনেকটাই কমে গেছে। আর এখন এসএসডিএর অনেক ব্র্যান্ড বাজারে আসছে। আর এই জন্যেই অনেকেই এসএসডি কিনতে অনেক আগ্রহী হচ্ছে।

এক সময় SSD কে আমরা বিলাসী হিসাবে ব্যবহার করতাম। বিলাসিতা মনে করে আমরা এসএসডি ব্যবহার করে থাকলেও  এখন তার  প্রয়োজনীয়তা অনেক অংশেই বেগে গেছে।

আমরা Hard Disc যখন ব্যবহার করতাম তখন সেই Hard Disc চলতো মূলত ছোট্ট Disc এর মাদ্ধমে। যখন কোনো ডাটা আমরা আদম প্রদান করতাম তখন কিন্তু সেই ডাটা জমা থাকতো ডিস্কে। কিন্তু এসএসডি তে কোনো Disc ব্যবহার করা হয় না।

এখানে ডাটা স্টোর করা হয়ে থাকে Disc এর ভিতরে ছোট্ট চিপ ব্যবহার করে যার ফলে দ্রুত ফাইল আদান প্রদান ও প্রোগ্রাম লোডে এসএসডি এখন অপরিহার্য ভূমিকা পালন করে আসছে।

এসএসডি -র বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এটি মেমরি কার্ডের মতো চিপে ডাটা ধারণ করে ফলে কম এনারজি খরচ করে দ্রুত তথ্য লেনদেন করতে পারে, এসএসডি এর সাইজও অনেক ছোট হয়। বাজারে এখন বিভিন্ন ব্র্যান্ড এর বিভিন্ন ধরণের এসএসডি পাওয়া যায়।

কিন্তু সকল ব্র্যান্ড এর এসএসডি এর গুনগতমান ও কার্যক্ষমতা কিন্তু এক নয়, আবার এই সকল এসএসডি এর দামে ও বেশ পার্থক্য রয়েছে।

তাই আজকে এসএসডি কেনার পূর্বে আমাদের কোন কোন বিষয়গুলোর উপরে খেয়াল রাখতে হবে সে সম্পর্কে কথা বলবো।

আর আমাদের পূর্বে এসএসডি’র দাম নিয়ে লেখা আমাদের আরেকটি লেখা রয়েছে, SSD price in BD চাইলে পরে আসতে পারেন।

আকৃতি

SSD কেনার আগে সাধারণ কিছু বিষয় জানতে হবে
SATA SSD ও উন্নত  M.2 SSD

বর্তমানে আমরা ২ধরণের এসএসডি দেখতে পাই একটা হলো SATA SSD ও উন্নত  M.2 SSD. এই ২ ধরণের এসএসডি কিন্তু আবার ২ ধরেন হয়ে থাকে।

SATA SSD দেখতে কিন্তু আবার ২.৫’ Hard Disc এর মতো অর্থাৎ ল্যাপটপ এর হার্ড ডেস্ক এর মতো। এতে ল্যাপটপ এবং ডেস্টপ এর seta ক্যাবল লাগানো যায়। কিন্তু  M.2 SSD আবার সকল ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ ছাড়া লাগানো যায় না। এই এসএসডি লাগাতে কিছু আলাদা মডেলের ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার লাগে জেতাতে M.2 এসএসডি পোর্ট থাকে।

DRAM

DRAM  আছে কিনা তা এসএসডি কেনার আগেই খেয়াল করতে হয়। অনেক এসএসডি আছে বিশেষ করে কম দামের ল্যাপটপে এই সমস্যা থাকে। DRAM না থাকার ফলে অনেক সময় সব এর ক্ষমতা এবং কম টেকসই সম্পন্ন হয়ে থাকে।

Speed

এসএসডি এর স্পীড মূলত নিৰ্ভৰ করে এর দাম ভেদে। কমদামের এসএসডি কিনলে আপনাকে চীনা প্রোডাক্টস কিনতে হবে। তাতে আপনার এসএসডি এর যে গতি পাবার কথা সেই গতি না পেয়ে আপনি সাথারণ Hard Disc এর মতোই কম গতি সম্পন্ন এসএসডি পেতে পারেন। তাই SSD কেনার সময় এর প্রাইস মাথায় রাখবেন তাতে আপনার SSD অনেক ভালো হবে।

Software

এসএসডি এর হেলথ চেক করার জন্যে বা SSD এর পারফরমেন্স ঠিক রাখার জন্যে আপনাকে সফ্টওয়ার ব্যবহার করতে হবে। এসএসডি এর পারফরমেন্স ভালো থাকলে সেই সকল এসএসডি বছাই করা উত্তম।

Firmware Update Tools

আপনাকে অনেক সময় Bug, Error, Speed Related Issue গুলো ঠিক করতে Firmware Update করার প্রয়োজন হয়ে থাকে। তাই এসএসডি কেনার পূর্বে আপনাকে Firmware Update এর ব্যবস্থা আছে কিনা সেই বিষয়ে খেয়াল রাখার প্রয়োজন হতে পারে। 

Temperature

আপনার Hard Disc বা এসএসডি যেটাই হোক না কেন অতিরিক্ত তাপমাত্রা কিন্তু আপনার এসএসডি তে ক্ষতি করবে। তাই যে সকল এসএসডি তে Temperature sensor যার মধ্যে আপনি এসএসডি এর Temperature সম্পর্কে জানতে পারবেন। খেয়াল রাখতে হবে আপনার এসএসডি এর তাপমাত্রা যেন ৬০ ডিগ্রি এর মধ্যে থাকে। এর বেশি হলে কিন্তু গতি কমতে শুরু করতে পারে। যদি আপনার ল্যাপটপ হয় তবে আপনি ল্যাপটপের নিচে ঠান্ডা হবার জন্যে যে কভার পাওয়া যায় সেটি ব্যবহার করতে পারেন। আর যদি ডেস্কটপ হয় তবে আপনাকে seta ক্যাবল দিয়ে এসএসডি একটু দূরে বসাতে পারেন।

Lifetime

আমরা Hard Disc বা SSD যেটাই কিনা থাকি না কেন প্রতিটি এসএসডি বা Hard Discকে একটি সম্ভাব্য লাইফটাইম উল্লেখ করা থাকে। এসএসডি এর লাইফটাইম অবসসই যে ব্র্যান্ড এর এসএসডি কিনবেন সেই SSD  এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট পাওয়া যায়। সেখান থেকে দেখে আপনাকে এসএসডি কিনতে সর্বাধিক MTBF দেখে কেনা উচিত।।

উপরের সমস্যাগুলি দাম এবং ব্র্যান্ডের পরিপ্রেক্ষিতে যথেষ্ট পরিবর্তিত হয়, তবে কিছু ব্র্যান্ডকে সাধারণভাবে সুপারিশ করা যেতে পারে, যেখানে এই সমস্ত সমস্যাগুলি উল্লেখযোগ্য হারে বিদ্যমান যেমন: Samsung, Corsair, ADATA, PNY, WD

Leave a Comment